দগ্ধস্বপ্ন

 

স্বপ্নঝরা স্মৃতির নীড়ে
সুখ সারিরা উড়াল দিলো
দুঃখের পাহাড় ভারি হলো
ডাকছে ফিরে ফিরে।

ছিলো আমার স্বপ্নঘেরা
সারি সারি ঘর
আজ সেখানে ধূধূ মরু
শুধুই বালি চর।

ক্রান্তিকালের মাহিন্দ্র এই ক্ষনে
হৃদনদীতে অশ্রু মাতম
কেমন করে বাঁচবে বলো
দুঃখি গরীবজনে।

অনাহারী মুখটা থাকে
আকাশ পানে চেয়ে
একটু খাবার শুকনো রুটি
কিংবা শিশুর দুধের বাটি
ঐ বিধাতার পরম দয়ায়
আসুক না আজ ধেয়ে

কেমনে আসে বলো?
মাঝখানে ঐ মুখোশধারী ধান্দাবাজ আর মজুদকারী
আসন পেতে আছে
ত্রানের টাকার চাল ডাল
লুটেরা আজ বিছায় জাল
আত্মসাতের মোহরাতে
সাজায় গুদাম বাড়ি।

সোনার ছেলের রুপটি দেখে বিশ্ববাসী হাসে
সবুজ শ্যমল স্বপ্ন ঘেরা
শহীদসেনার রক্তে গড়া
সোনার বাংলার ব্যর্থ ছবি
চোখের তারায় ভাসে।।

 

মঞ্জিলা  শরীফ –  কবিও  সাহিত্যিক

আরও পড়ুন