দৃশ্যপট-আসাদুজ্জামান শাওন

দৃশ্যপট
আসাদুজ্জামান শাওন
————————————-
মহান দার্শনিক চিন্তাগুলো বিছিন্ন করেছিলো আমাকে ক্ষুদ্র ব-দ্বীপের মতন
আপেল পাতার কোমল ছায়ায় বসে –
অবাক বিস্ময়ে দেখছিলাম প্রকৃতির অদ্ভুত রহস্য সেই সাথে জাগতিক পরিবর্তন।
রাতের আকস্মিক মৃত্যু অতঃপর ভোরের অনুপ্রবেশ
ভোরের উদীয়মান সূর্য তখনও মধ্যাহ্ন অবধি পৌঁছায়নি,
দিনটি ছিলো মে মাসের চমৎকার রৌদ্রময় সকাল;
ছিলো স্বর্গ চক্ষুসম সূর্যের তপ্ত কিরণ।
আর, এসব দেখছিলাম দূর হতে; দেখছিলাম –
ডেইজি ও বার্লির সারি সারি শস্যক্ষেত,রোদের শাসন, নিকটবর্তী রোদ-ছায়ার আদিম প্রণয়,
শান্ত ছবির মতন সাজানো গ্রাম,গ্রাম্য জীবন – দূরের গু’টি কয়েক ঘর-বাড়ি হাওয়ায় দুলছে।
পাইনের বনে মৃদু মন্দ বাতাসের নিরর্থক আন্দোলন
ফসলের মাঠ – জমিনের পৌরাণিক শরীরে বিক্ষিপ্ত রোদ,
কৃষক-কৃষাণীগণ – ওদের শরীরে রোদের তৈলচিত্র,
সোনালী মাঠের বুক চিড়ে ফসল ভর্তি ঘোড়ার গাড়ি
একটি, তিনটি,পাঁচটি এভাবে নয়টি –
শস্যভর্তি ঘোড়ার গাড়িগুলো ছুটে যাচ্ছিলো অনন্তকালের পথে।
পশ্চিমা বায়ু ধীর লয়ে বয়ে যাচ্ছিলো – মহিমান্বিত পবিত্র নদীর মতন;
নদীর পাড়ে অসংখ্য ছোট ছোট ঝোপঝাড় – পানকৌড়ির বিস্ময়কর লুকোচুড়ি!
তীরে অদৃশ্য হাওয়ায় নৃত্যরত সোনালী ড্যাফোডিল,যাদেরকে একদৃষ্টিপাতে দেখেছিলাম বিশ হাজারের মতন – হয়ত কম বা আরও অধিক;
দূরের নদী, পালতোলা নৌকা, মাঝির ভাঙ্গা কন্ঠে জন লেলন – এর “গ্যিভ পীস্ এ্যা চান্স” সং।
মৎস শিকাররত মাছরাঙা দম্পতি – দিন শেষে ও’রা চুমো খাচ্ছিলো ঠোঁটে-ঠোঁটে!
বালুচর ধরে হেঁটে যাচ্ছিলো একদল লাল কাঁকড়া – বিশেষ অভ্যর্থনায় অপেক্ষারত ঢেউ।
ঝিম ধরা আলোয় – আর,এসব দেখছিলাম, দূর হতে –
দূরাগত পপি ফুলের গন্ধে তন্দ্রাছন্ন প্রায় অলস মস্তিষ্ক ; দৃঢ় অপেক্ষায় সন্ধ্যার ও প্রার্থনার।
মাথার উপর দিয়ে উত্তর-পশ্চিমে উড়ে যাচ্ছিলো গাঙচিল
বকের সারি,এমনকি একঝাঁক চড়ুইপাখি – তাদের বিমোহিত কিচির-মিচির শব্দ।
ঘন জঙ্গল হতে ভেসে আসছিলো হলুদ বক্ষধারী পাখির মাতাল সংগীত – সপ্তমী সুর, ঝিঝি পোকার ডাক।
যদি ভিনসেন্ট উইলিয়ামস ভ্যান গখ বেঁচে থাকতেন!
তবে অনুরোধ করা যেত – বিনীত অনুরোধ দৃশ্যপটগুলোর একটি পোর্ট্রেইটের জন্য –
যেন আমার মৃত্যুর পর – ভবিষৎ প্রজন্ম – এমনকি তাদের ভবিষৎ প্রজন্ম,
ভালোবাসতে পারে প্রকৃতিকে,উদঘাটন করতে পারে অপার সৌন্দর্য ;
ও’রা সবাই যেন বুঝতে পারে প্রজ্ঞাময় প্রভুর অনুগ্রহ!
অথচ,তিনি গত হলেন আমার জন্মের একশত উনত্রিশ বছর পূর্বে,
মানুষের জীবন ড্যাফোডিলের মতন স্বল্প আয়ুষ্কাল – বসন্তের মতন সংক্ষিপ্ত।

 

আরও পড়ুন