মৃত্যু

আব্দুস শাকুর তুহিন

খাটিয়ায় করে কবরস্থানে
নিয়ে আসা হল আমাকে,
হায়! গতকালও দিব্যি হেসেছি,
সুখ টান ছিল তামাকে।

কত কথা ছিল তামাশার ছলে,
চ্যাট ছিল ফেইসবুকে,
আর আজ আমি শুয়ে আছি শুধু,
কোন কথা নেই মুখে।

শেষবার যারা আসছে দেখতে
কেউ কাঁদে কেউ হাসে,
আধখোলা এই দুচোখ জুড়ে তো
দৃষ্টিহীনতা ভাসে।

একটুপরেই এই আমাকেই
দেওয়া হবে মাটি চাপা,
তুচ্ছ জ্ঞানেই কেউ মাটি দেবে,
কারো হাত কাঁপা কাঁপা।

নিজকে নিয়ে সে কী গর্ব না-ই
ছিলো এই বুক জুড়ে!
বুঝি আজ বুঝি নিজের অহমে
নিজেই গিয়েছি পুড়ে।

মানুষগুলোকে মানুষের মতো
করিনি কখনো জ্ঞান,
কেন যে এমন কেটেছে সময়
ভাঙেনি কখনো ধ্যান !

হায়! আজ এই খাটিয়ায় আমি
নির্জীব শুয়ে আছি।
নেইকো ক্ষমতা তাড়ানোর মতো
ছোট্ট একটা মাছি।

যে বিশাল দেহ নিয়ে ছিল কত
গর্ব অহংকার,
সেই দেহ আজ ভঙ্গুর হয়ে
ঘিরেছে অন্ধকার।

আমার দুনিয়া পিছে পড়ে আছে
ধন, খ্যাতি, পরিবার,
বন্ধু-স্বজন সব দুনিয়াতে
দুনিয়াতে কড়ি হার।

অনন্ত এই পথ পাড়ি দিতে
শুধু একা শুধু আমি,
আমার না-থাকা এই দুনিয়ায়
কিচ্ছু যাবেনা থামি।

অনুপস্থিতি শুধুই আমার
আমারই তো চলে যাওয়া,
আমার না থাকা মানে একান্ত
আমি হয়ে গেছি হাওয়া।

আমার পায়ের চিহ্ন যদি না
পড়ে এই ধরা বুকে,
পৃথিবীবাসীর কিচ্ছু হবে না
একটুও সুখে-দুখে।

মাঝখান থেকে আমিই কেবল
চলে যাই চলে যাই,
অনন্ত এক জীবনের কথা
কানে কানে বলে যাই।

লেখকঃকবি ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব। 

আরও পড়ুন