সরোজিনী

 

 

সরোজিনী  কার জন্যে কাঁদলে তুমি দিন রজনী,

কার জন্যে রইলে জেগে রাত্রি প্রহর?

অথৈজলের জোয়ার নামে কাজল চোখে কার জন্যে?

চৈত্রনিশি একলা দুপুর উদাস তুমি

আগুন ঢালা সূর্য দাহে!

সানবাঁধানো দিঘীর ঘাটে পা ডুবিয়ে ভাবছো কি গো নির্জনে ?

আঁচল তোমার ঢেউয়ে ভাসে দখিন হাওয়ায়,

এলো চুলে বিষাদ ডুবে মেঘের ছোঁয়ায়,!

কার জন্যে কাঁদলে তুমি  রাত্রিনিশি?

মগ্ন তুমি কার ধ্যানে পুজোর ছলে,

তুলসীতলে জ্বালিয়ে রাখো সন্ধ্যাপ্রদীপ?

যার জন্যে হৃদয় মন্দির আড়াল করে

মনের দুয়ার বন্ধ করে আকুল প্রাণে কাঁদছো একা নিরবধি!!

যার মন্ত্রের ব্রত তোমার দিন ফুরালো,

মনের দেয়াল ভাঙলো কবেই তা দেখোনি সরোজিনী?

অমাবস্যায় আঁধার নামে প্রাণের কোণে

জোছনা ফোটা পূর্ণিমাসে,

বৈঁচিমালা নিত্য যপো কার বিরহে,

কার আরতি ঠাকুর ঘরে ব্যথার  গানে,

যে তোমারে মারলো প্রাণে

যে তোমারে মারলো  শুধুই বিষাদ বাণে?

 

 

রত্না আফরোজ – কবি 

আরও পড়ুন