সাজাই ফুলের ডালি

আব্দুস শাকুর তুহিনঃ

ভেজা ভেজা চোখে মা এক
বললো ডেকে, “তালিব,
কত্ত ভালো ছেলে আমার!
নাম কি? হ্যাঁ হ্যাঁ গালিব।

বয়স ছেলের উনিশ হলো
গত বছর মার্চে,
ছেলে আমার টুকরা সোনার,
কেবা ভালো তার চে’ !

গালিব আমার, হঠাৎ যে তার
পাচ্ছিনা খোঁজ আমি,
কোথায় গেল আমায় ফেলে !
খুঁজি দিবসযামী।

শুনেছি সে বিয়ে শেষে
বউ নিয়ে তার সাথে
চলেই গেছে, ফিরবে না আর
আমার আঙিনাতে।”

তালিব বলে, “কারণ কি বোন,
ছিলো এমন কিছু?
চেয়েছিলো, পায়নি বলে
দিলো সে টান পিছু?”

“না, কখনোই না,
প্রয়োজনের সব দিয়েছি
যা-ই চেয়েছে তা।”

“সব দিয়েছি- মানে কি বোন?
বুঝছি না তো আমি,
সব দিলে সে দিনের শেষে
কেন এ পথগামী!”

“কোল দিয়েছি পিঠ দিয়েছি
ভালোবাসা আদর,
খেলনা কাপড় পয়সা খাবার
প্রয়োজনে যখন যা তার
সব দিয়েছি, এ-ও বলেছি
গালিব নে, সব, যা তোর।”

“আচ্ছা আপু, তোমার গালিব
ধর্ম কী তা জানতো?
স্রষ্টা তাকে কী বলেছেন?
রাসুলরা কোন্ পথ চলেছেন?
তোমার আমার ইতিহাসের
সংস্কৃতি লয় বিনাশের
কথা কি সে মানতো ?”

“ভেবেছিলাম বড় হলেই
মানবে এসব কিছু।”
“তেঁতুল গাছে আম আসে না
কিংবা কাঁঠাল লিচু।

উনিশ বছর সব দিয়েছো
দাও নি শুধু আলো,
আলো ছাড়া দেখো তোমার
গালিব কেমন ভালো!

নৈতিকতার বীজ বুনি না
ফল চাই ওমর আলী,
ফুলের বাগান না সাজালে
সাজবে কি ফুল ডালি?”

লেখকঃ সাহিত্যিক,ছড়াকার ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব। 

আরও পড়ুন