দোষটা আমার

ফাহমিদা বিনতে মুজিব

আজকের ভোর প্রতিদিনকার মত ছিল না!
সুবহে সাদিকের স্নিগ্ধ বাতাস যখন বলছে
সতেজতার কথা ‘, তখন মনে হচ্ছে এই
বাতাসের যেন স্নিগ্ধতাই নেই।
অরুণের রঙে রঙিন এ আকাশ
যেনন বিষণ্ন মনে হচ্ছে।
বসন্তের এ চির সবুজ প্রকৃতি, আমের মুকুল,
কোকিলের গান ‘, সব
সবকিছুই যেন মলিন হয়ে পড়ছে।
আমার মুসলিম ভাই -বোনেরা যে ভালো নেই!
কোকিলের এ গান যেন আমার মুসলিমাহ
বোনের আর্তনাদ প্রকাশ করছে।
কিভাবে বোঝাই?
বসন্তের এ সৌজন্যতা যেন জীবন্ত মনে হচ্ছেনা।
যেন নিরস, নিস্তব্ধ!
রঙিন আকাশ যেন দিল্লির ভাইয়ের বুকের
রক্তে রঙিন।
রাস্তায় হাঁটার পথে পলাশের ঘ্রাণে
মুখোরিত হবার জন্য সাথীদের ফুল আরোহনের দাওয়াত ও যেন এ হৃদয় প্রত্যাখ্যান করছে। বারংবার!
তবুও এ হৃদয় অকৃতজ্ঞ।
কেন যেন বিছানার নরম গদিতেই স্নাত।
মুসলিম ভাই বোনদের আর্তনাদ যেন শুনেও
না শুনার ভান করে আছে এ হৃদয়।
হে সমর্পিত আত্মা, তুমিই বল।
একি নিদারুণ নিঃস্বতা!
কত নিষ্ঠুর!কত স্বার্থপরতা!
এটাই কি ভাই-বোনদের প্রতি ভালোবাসার পরিবৃত্তি?
না!কখনো নয়।
আসলে অকৃতজ্ঞ আর স্বার্থপর এ মুসলিম হৃদয়।
দোষটা স্বার্থপর হৃদয়ের!

আরও পড়ুন